November 7, 2017
নোয়াখালীতে কর বাহাদুর সম্মাননা পাচ্ছেন আবুল খায়ের পরিবার

স্টাফ রিপোর্টার: জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এবার “কর বাহাদুর পরিবার” সম্মাননা দিচ্ছে ৮৪টি পরিবারকে নোয়াখালী “কর বাহাদুর পরিবার” হিসেবে সম্মাননা অর্জন করেছেন নোয়াখালীর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মের্সাস আবুল খায়ের এন্ড আর্দাস এর স্বত্বাধীকারী হাজী মো: আবুল খায়ের। এছাড়াও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ১৪১ ব্যাক্তি প্রতিষ্ঠানকে ট্যাক্স কার্ড প্রদান করবে। তালিকায় নতুন করদাতা ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানসহ নায়ক, নায়িকা, অভিনেতা, খেলোয়ার ও সাংবাদিকের নাম রয়েছে। করদাতাদের উৎসাহ ও ২০১৬-১৭ অর্থবছরে সেরা করদাতার স্বীকৃতি হিসেবে ৩ ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড দেয়া হবে। অর্থ মন্ত্রনালয়ের আওয়াতাধীন অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের উপ-সচিব সুরাইয়া পারভীন শেলী স্বাক্ষরিত ট্যাক্স কার্ড প্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ব্যক্তি শ্রেণীতে ৫৫জন ও কোম্পানী শ্রেণীতে ৫৫জন অন্যান্য শ্রেণীতে ১০জন করদাতাকে মনোনীত করা হয়েছে। হাজী আবুল খায়ের এর পরিবার জেলার দীর্ঘ মেয়াদী ও সর্বোচ্ছ করদাতার স্বীকৃতি লাভ করে ২০০১সালে। সম্প্রতি এ সংক্রান্ত একটি সারসংক্ষেপ অনুমোদনের জন্য অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছে উপস্থাপন করা হলে তিনি তাতে সম্মতি দেন। শিগগিরই এ বিষয় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে সূত্র জানিয়েছে। এর আগে চলতি ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের বাজেট প্রণয়নের আগে অর্থমন্ত্রী জানিয়েছিলেন প্রত্যেক বাজেটে কিছু চমক থাকে। আমাদের দেশ রাজস্ব আদায়ের দিক থেকে পাশ্ববর্তী দেশগুলো থেকে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। দেশে সুষম উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হলে আমাদের রাজস্ব আয় বাড়াতে হবে। দেশের মানুষকে আয়কর দিতে উদ্ধুত করতে যে পরিবারের সব সদস্য আয়কর পরিশোধ করবে তাদের “কর বাহাদুর পরিবার” হিসেবে সম্মাননা দেয়ার ঘোষণা দেয়া হবে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল মুহিত ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের বাজেট বক্তৃতায় একই পরিবারের সব সদস্য দীর্ঘ সময় ধরে আয়কর দিলে সে পরিবারকে “কর বাহাদুর পরিবার” হিসেবে ঘোষণা করার প্রস্তাব দেন। দেশে প্রথমবারের মতো তার ওই ঘোষণা বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যে একই পরিবারের সব সদস্য যারা ২০১৬-২০১৭ কর বছর পর্যন্ত দীর্ঘকাল নিয়মিতভাবে আয়কর প্রদান করে আসছেন-এমন পরিবারের তথ্য সংগ্রহের পদক্ষেপ নেয় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। এ লক্ষ্যে তথ্য সংগ্রহের জন্য সব কর অঞ্চলে চিঠি পাঠানো হয় এবং পরিবারের পক্ষ থেকে আবেদন আহ্বান করে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা হয়। সূত্র আরো জানায়, সংবাদ মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রকাশ হওয়ার পর দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে “কর বাহাদুর পরিবার” হিসেবে ১২টি পরিবার আবেদন করে । এছাড়া সব কর অঞ্চলের আওতাধীন প্রতি জেলা থেকে একটি পরিবারকে মনোনীত করে এ সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করা হয়।
সূত্র থেকে আরো জানা যায়, দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রাপ্ত আবেদনগুলো এবং প্রতিটি কর অঞ্চল থেকে প্রাপ্ত তথ্য এনবিআর পর্যালোচনা করে। আয়কর প্রদানে পরিবারের সদস্যদের ধারাবাহিক অবদান ও পরিবারের সদস্য সংখ্যা “কর বাহাদুর পরিবার” মনোনয়নের জন্য বিবেচনা করা হয়েছে। করদাতার সংখ্যা বিবেচনা করে ২০১৬-২০১৭ কর বছরে ঢাকা থেকে ১৬টি পরিবার, চট্টগ্রাম থেকে ৮টি পরিবারকে কর বাহাদুর পরিবার মনোনয়নের জন্য সুপারিশ করা হচ্ছে। তবে একই পরিবারের সব সদস্য দীর্ঘদিন ধরে আয়কর প্রদান করেন-এমন পরিবার না পাওয়ায় রাঙ্গামাড়ি ও খাগড়াছড়ি জেলায় কোনো কর বাহাদুর পরিবার মনোনীত করা যায়নি।

 

Spread the love
আরো খবর


প্রতিষ্ঠাতা: মরহুম কাজী মো: রফিক উল্যাহ, সম্পাদক: ইয়াকুব নবী ইমন, প্রকাশক: কাজী নাজমুন নাহার। সম্পাদক কর্তৃক জননী অফসেট প্রেস, ছিদ্দিক প্লাজা, করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী থেকে মূদ্রিত।

বার্তা, সম্পাদকীয় ও বানিজ্যিক কার্যালয়: ছিদ্দিক প্লাজা(৩য় তলা উত্তর পাশ), করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী। মোবাইল: সম্পাদক-০১৭১২৫৯৩২৫৪, ০১৮১২৩৩১৮০৬, ইমেইল-:: jatiyanishan@gmail.com, Emonpress@gmail.com