,

নৌকার বিজয়ে কাজ করছেন আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক

TOMA MANIK-PIC

নিশান ডেক্স: নোয়াখালী-২(সেনবাগ-সোনাইমুড়ী আংশিক) আসনে নৌকার বিজয় তরান্নিত করতে কাজ করে যাচ্ছেন বিশিষ্ঠ শিল্পপতি, তমা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক। ধিরে ধিরে তিনি তৃণমূল পর্যায়ে নেতাকর্মীদের আস্থার প্রতিক হয়ে উঠছেন। দলীয় বিভিন্ন কর্মকান্ডের মধ্য দিয়ে তিনি অল্প দিনেই সেনবাগ- সোনাইমুড়ী এলাকার আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মনজয় করতে সক্ষম হন। এলাকায় বিভিন্ন অনুষ্ঠান, সভা-সমাবেশ, আলোচনা সভা, ক্রীড়া প্রতিযোগীতা, সাংস্কৃতিক অন্ষ্ঠুান, দলের প্রয়াত নেতাকর্মীদের ম্মরণে অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্যে দিয়ে তিনি তৃণমূলের নেতাকর্মীদের বিশ^স্ত হয়ে উঠেন। এলাকার তরুন, যুবক, বৃদ্ধা-বানিতাদের নিয়ে ভাবেন তিনি। সমাজের অসহায় নির্যাতিত, নিপিড়িত মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারলেই যেন তিনি আনন্দ পান। নানামুখি কর্মতৎপতায় আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক বর্তমানে সেনবাগ-সোনাইমুড়ীর নেতাকর্মীদের আস্থা ভাজন এক ব্যক্তি। কর্মজীবনে ব্যাপক ব্যস্ত একজন মানুষ হলেও দলের প্রয়োজনে যে কোন সময় যে কোন জায়গায় তিনি উপস্থিত হতে দ্বিধাবোধ করেননা। যার মধ্যে রয়েছে নেতৃত্ব দেওয়ার অসাধারণ এক গুনাবলি। সময়ের ব্যবধানে দলের একজন বড় নেতা থেকে শুরু করে সাধারণ কর্মী পর্যন্ত খুব সহজেই তিনি মিশতে পারেন। তিনি বিগত সময়ে যে কোন বিপদে শুধু দলীয় নেতাকর্মী নয়-সমাজের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। গত বছর এলাকায় ভয়াবহ বন্যা চলাকালে আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক ব্যক্তিগত উদ্যেগে সেনবাগ ও সোনাইমুড়ী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে রেকর্ড পরিমাণ ত্রাণ সামগ্রি বিতরণ করে মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছেন। শুধু তাই নয়-এলাকায় শিক্ষা বিস্তারের লক্ষে তিনি নিজের নামে সোনাইমুড়ীর বারগাঁও ইউনিয়নে প্রতিষ্ঠা করেন “আতাউর রহমান ভূঁইয়া স্কুল এন্ড কলেজ”। সোনাইমুড়ী উপজেলা পরিষদের অভ্যন্তরে নির্মাণ করছেন সুদৃশ্য মসজিদ। এছাড়াও তিনি এলাকার মসজিদ, মাদ্রাসা, স্কুল, কলেজসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত। সেনবাগের মানুষের সুখে-দু:খে পাশে দাঁড়াতে সেনবাগ পৌর এলাকার উত্তর শাহাপুরে নির্মাণ করেন তৌহিদা রহমান ভিলেজ। সেখান থেকেই তিনি তার সকল রাজনৈতিক কর্মসূচী পরিচালনা করছেন। এক সময়ে ঝিমিয়ে পড়া সেনবাগের রাজনীতি এখন অনেক চাঙ্গা। নেতৃত্বের অভাবেই ঝিমিয়ে ছিল তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক এখন সেনবাগের নেতাকর্মীদের আশার প্রতিক। দলের দূর্দিনের কান্ডারী।
সেনবাগের একাধিক তৃণমূলের নেতাকর্মীর সাথে আলাপ কালে জানা যায়, যিনি নেতাকর্মী বন্ধন, নেতাকর্মীরা বিপদে-আপদে যাকে সব সময় পায় তিনি আর কেউ নন-তিনি হলেন, আতাউর রহমান মানিক। আমরা আগামীতে উনাকে নিয়েই ভাবছি কারণ সেনবাগের মৃত রাজনীতিকে তিনি জিবিত করেছেন। নিজের জন্য কিছু করার ইচ্ছা নিয়ে তিনি এখানে আসেননা যা নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে তিনি প্রমাণ করেছেন। তাই নেতাকর্মীরা চায় আগামীতে তিনি এই আসন থেকে এমপি প্রার্থী হোক। দল তাকে সঠিক মূল্যায়ন করুক।
এদিকে এক প্রতিক্রিয়ায় নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক বলেন, আমি দলের জন্য কাজ করে যেতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আওয়ামীলীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা ও দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাহেবের নির্দেশে আমি নৌকার বিজয় নিশ্চিতের লক্ষ্যে দলের সকল পর্যায়ে কোন্দল ও ভুল বুঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে দলের ঐক্যে বন্ধ করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। যাতে দলের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ থাকে। কারণ দলের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যাকেই নৌকা মার্কা দিয়ে এলাকায় পাঠাবেন তার বিজয় সহজ হবে। আমি সেই লক্ষেই কাজ করে যাচ্ছি। নোয়াখালী-২( সেনবাগ- সোনাইমুড়ী আংশিক) আসনে নৌকার প্রার্থীকে জয়ি করতে তিনি দলের নেতাকর্মীসহ সকলের সহযোগীতা কামনা করেন। (আগামী সংখ্যায় পড়–ন নোয়াখালী-৩(বেগমগঞ্জ) আসনের এমপি আলহাজ¦ মামুনুর রশিদ কিরণ এমপির রাজনৈতিক উত্থান)

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রতিষ্ঠাতা: মরহুম কাজী মো: রফিক উল্যাহ, সম্পাদক: ইয়াকুব নবী ইমন, প্রকাশক: কাজী নাজমুন নাহার। সম্পাদক কর্তৃক জননী অফসেট প্রেস, ছিদ্দিক প্লাজা, করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী থেকে মূদ্রিত।
বার্তা, সম্পাদকীয় ও বানিজ্যিক কার্যালয়: ছিদ্দিক প্লাজা(৩য় তলা উত্তর পাশ), করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী। মোবাইল: সম্পাদক-০১৭১২৫৯৩২৫৪, ০১৮১২৩৩১৮০৬, ইমেইল-:: jatiyanishan@gmail.com, Emonpress@gmail.com
Developed By: Trust soft bd