,

বেগমগঞ্জে বাহার বাহিনীর সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার দাবী

প্রতিনিধি: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আমানতপুর গ্রামের তালতলা এলাকার মানুষ সন্ত্রাসী বাহার ও তার বাহিনীর সদস্যদের গ্রেফতার দাবী করেছে এলাকাবাসী। জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত এক অভিযোগপত্রে স্থানীয় এই দাবী জানায়। এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার বিকালে বেগমগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফরিদা খানম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
অভিযোগে জানা যায়, ওই এলাকার বক্তার বাড়ির মৃত ইব্রাহিমের পুত্র বাহার উদ্দিন এলাকায় একটি সন্ত্রাসী বাহিনী গঠন করে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসা, সাধারণ মানুষের সম্পত্তি জবর দখল,  মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করাসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড করে আসছে। চৌমুহনী-লক্ষীপুর  সড়কের পাশে সড়ক ও জনপদ বিভাগের পতিত সম্পত্তিতে (ডোবা) স্থানীয় আমানতপুর মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ মাছ চাষ করে আসছে দীর্ঘদিন থেকে। মাদ্রসার এতিম, অসহায় শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে এলাকাবাসীও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষকে সহযোগীতা করে। কিন্তু গত ২৮-৫-১৭ইং তারিখে বাহার উদ্দিন জায়গাটি তার দাবী করে বাহিনীর সদস্য নিয়ে ’বাহর মাৎস খামার’ নাসে সাইন বোর্ড লাগিয়ে দেয়। এর আগে বাহার ডোবাতে বিষ প্রয়োগ করে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের চাষকৃত মাছগুলো মেরে ফেলে। পানিতে বিষ প্রয়োগ করায় মাছগুলো মরে পচে ভেসে উঠছে ও পানি বিষাক্ত  হয়ে পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে।  এ নিয়ে স্থানীয়রা বাঁধা দিলে ও প্রতিবাদ করলে বাহার ও তার বাহিনীর সদস্যা এলাকাবাসীর উপর হামলা করে। এতে এলাকার মৃত আবুল হাসেমের পুত্র নাসির(৪৫) সহ একাধিক ব্যক্তি আহত হয়। এলাকাবাসীর পক্ষে কথা বলায় বাহার স্থানীয় চেয়ারম্যান কামাল হোসেন সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্থানে মিথ্যা তথ্য সরবরাহ করে বিব্রান্তি সৃষ্টি করছে। যা বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশ হয়। এনিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। শুধু তাই নয়, বাহার স্থানীয় শামছল হক মিয়ার বাড়ির মৃত শামছল হকের পুত্র মো: সাইফুল্যাহর সম্পতিটিও (যার মৌজা নং-১৭২, খতিয়ান নং-৩৬৭, দাগ নং-২৫৫-২৬০) দখল করেছে। যা সরেজমিন তদন্ত করলে সত্যতা মিলবে। এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার বিকালে বেগমগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফরিদা খানম ঘটনাস্থলে গিয়ে সরেজমিন তদন্ত করেছেন। এমতাবস্থায় এলাকার শান্তি শৃংখলা রক্ষার্থে সরকারী সম্পত্তি দখলকারী ও বিষ দিয়ে মাছ নিধনকারী বাহার ও তার বাহিনীর সদস্যদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেছে এলাকাবাসী।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রতিষ্ঠাতা: মরহুম কাজী মো: রফিক উল্যাহ, সম্পাদক: ইয়াকুব নবী ইমন, প্রকাশক: কাজী নাজমুন নাহার। সম্পাদক কর্তৃক জননী অফসেট প্রেস, ছিদ্দিক প্লাজা, করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী থেকে মূদ্রিত।
বার্তা, সম্পাদকীয় ও বানিজ্যিক কার্যালয়: ছিদ্দিক প্লাজা(৩য় তলা উত্তর পাশ), করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী। মোবাইল: সম্পাদক-০১৭১২৫৯৩২৫৪, ০১৮১২৩৩১৮০৬, ইমেইল-:: jatiyanishan@gmail.com, Emonpress@gmail.com
Developed By: Trust soft bd