,

সাংবাদিকতা ও প্রেক্ষিত বাংলাদেশ

10689572_855251574507176_3798119017811184261_n

ইয়াকুব নবী ইমন: এক বিষন্ন হৃদয় নিয়ে আজকের লেখাটি লিখতে বসেছি। আমি যখন অফিসের লেফটপের স্কিনে এই লেখাটি লিখছি তখনও হয়তো দেশের কোথাও না কোথাও সাংবাদ সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত কোন সাংবাদিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। এই নির্যাতন শুধু শারিকি নির্যাতন নয়। নির্যাতন হতে পারে সাংবাদ প্রকাশের কারণে হুমকি, ধমকি, জিম্মি, চাকরী খাওয়ার ধমকের মাধ্যমে।
কয়দিন আগেই এক পৌর মেয়রের গুলিতে খুন হন দৈনিক সমকালের সাংবাদিক । এই হত্যাকান্ডের পর সারা দেশে প্রতিবাদের ঝড় উঠে। তিনি খুন হয়েছেন তার পেশাগত দায়ীত্ব পালনকালে। এর আগে দৈনিক রানা এর সম্পাদক, দৈনিক জনকন্ঠের সাংবাদিক মানিক সাহা সহ অসংখ্যা সাংবাদিক খুনের শিকার হয়েছে দেশে। বিশেষ করে চাঞ্চল্যকর সাংবাদিক সম্পতি সাগর-রুনি হত্যাকান্ডতো আমাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে সাংবাদিক হত্যাকান্ডের সামগ্রিক পরিস্থিতি। আমরা আজো সাংবাদিক সাগর-রুনি হত্যাকান্ডের কোন কুল কিনারা পাইনি। আর কখনো পবো কিনা তা নিয়েও সন্দেহ আছে। চলতি বছরের গত ১লা মে ঢাকায় অনলাইন পত্রিকা নতুন সময় এর নির্বাহী সম্পাদককে গ্রেফতার করা হয় তথ্য প্রযুক্তি আইনের মামলায়। যে তথ্য প্রযুক্তি নিয়ে সাংবাদিকরা ২৪ ঘন্টা কাজ করেন সেই তথ্য প্রযুক্তি আইনেই বেশি হয়রানীর শিকার হচ্ছেন সাংবাদিকরা। যার জন্য এই আইনটি সংশোধন এখন সময়ের দাবী।
এদিকে দেশে সংবাদপত্র, টিভি মিডিয়া ও সাংবাদিকের সংখ্যা বাড়ছে। বলতে গেলে বর্তমান সরকার অনেকগুলো পত্রিকা, টিভি স্টেশন ও রেডিও স্টেশনের অনুমোদন দিয়েছে। সরকারের আন্তরিকতায় মিডিয়ার সংখ্যা বাড়লেও কর্মক্ষেত্র এখনো মসৃন নয়।
এখনো অনেক সংবাদপত্র, টিভি ও রেডিও স্টেশন দেউলিয়া হচ্ছে। এর বাইরে দিগন্ত টিভি, ইসলামী টিভি, দৈনিক আমার দেশ, বাংলাদেশ অবজারভার,  বাংলামেইল সহ অনেকগুলো মিডিয়া বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সারা দেশে অনেক সাংবাদিক বেকার দিন কাটাচ্ছেন। অনেক পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে। এমতাবস্থায় দেশের আবাধ তথ্য প্রবাহের যুগে কোন সাংবাদিক নির্যাতন গ্রহন যোগ্য নয়। দেশের উন্নয়নের স্বার্থে সাংবাদিকদের স্বাধীনতা দিতে হবে। তবে স্বাধীনতা পেয়ে কোন সাংবাদিক যেন দেশ ও দশের ক্ষতি করতে না পারে অবিশ্যই সরকার ও সাংবাদিক সংগঠনগুলো তা খতিয়ে দেখবে।
আমরা চাই এ ব্যাপারে সরকার আরো উদ্যেগি হবে। সেই ক্ষেত্রে আমাদের কোন সহযোগীতা লাগলে আবিশ্যই আমরা সরকারকে সহযোগীতা করবো। তবুও আমরা আর কোন সাংবাদিকের লাশ দেখতে চাই না। শুনতে চাই না কোন সংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা।

সহ-সভাপতি, চৌমুহনী প্রেসক্লাব

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক, দৈনিক জাতীয় নিশান

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রতিষ্ঠাতা: মরহুম কাজী মো: রফিক উল্যাহ, সম্পাদক: ইয়াকুব নবী ইমন, প্রকাশক: কাজী নাজমুন নাহার। সম্পাদক কর্তৃক জননী অফসেট প্রেস, ছিদ্দিক প্লাজা, করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী থেকে মূদ্রিত।
বার্তা, সম্পাদকীয় ও বানিজ্যিক কার্যালয়: ছিদ্দিক প্লাজা(৩য় তলা উত্তর পাশ), করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী। মোবাইল: সম্পাদক-০১৭১২৫৯৩২৫৪, ০১৮১২৩৩১৮০৬, ইমেইল-:: jatiyanishan@gmail.com, Emonpress@gmail.com
Developed By: Trust soft bd