,

আদালতের নির্দেশ অমান্য করে সেনবাগে বৃদ্ধের গাছ কর্তন

senbag-pic-8-nob-20171-2

সেনবাগ প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ৮নং বীজবাগ ইউনিয়নের ধর্মপুর গ্রামে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে এক বয়বৃদ্ধ এক ব্যাক্তির জায়গা থেকে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী লোকজন দিয়ে কয়েক লাখ টাকার গাছ কর্তন করে নিয়ে যাবার অভিযোগ ওঠেছে প্রতিপক্ষ মনির আহম্মেদের বিরুদ্ধে । ওই গাছ-পালা কেটে নেওয়ার ঘটনাটি ঘটেছে গত রোববার(৫নভেম্বর) দুপুরে।ওই বৃদ্ধ এই ঘটনার প্রতিবাদ করায় তাকে হত্যা ও গুমের হুমকি দেওয়ায় প্রাণ ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তিনি।
বৃদ্ধ আহছান উল্লা জানায় তিনি পিতার ওয়ারিশ সুত্রে এবং নিজের ক্রয় করা ২০/৫/১৯৭০ ইং তারিখে ৪০৫৪ ,সফি উল্লা থেকে ৮/৫/৭৪ ইং তারিখে ৩৪৯৮ ও ৩৬২৭ নং ছাপ কবলা দলিলে, ১৯/১১/৭৪ইং আবদুস ছোবান থেকে ছাপ কবলা দলিল মুলে,১৭/৬/৭২ ইং তারিখে জাকিয়া খাতুন থেকে ৩৭১৫ ছাপ কবলা দলিল মুলে মালিক ও দখলদএছাড়াও প্রতিপক্ষ মনির আহাম্মদ থেকে বিগত ১১/৮/৬৭ইং ৩৬০১ ,হাবিব উল্লাহ গং হইতে ২০/১২/৮২ইং ১৫৫২ নং দলিলে ও ও খায়েরের নেছা থেকে ১৯/৩/৮২ইং ৩৯৮৩ নং ছাপ কবলা দলিলে মালিক ও দখলদার।
কিন্তু প্রতিপক্ষ মনির আহম্মদ পিতা মৃত এয়াকুব আলী জোর জবর দখল করে তার সম্পত্তি অনধিকার প্রবেশ করে তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে তার জায়গা সম্পত্তি দখল ও গাছ পালা কেটে নেওয়ার হুমকি দমকি দিচ্ছেন। তাই নিরুপায় তিনি জানমাল রক্ষায় বিজ্ঞ নোয়াখালী জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দন্ডিবিধি ৪৩৮/২০১৭ইং তার তপসিলি ভুমিতে যাতে কেউ অনঅধিকার প্রবেশ করতে না পারে সে জন্য ১৪৪/১৪৫ধারা জারির আবেদন করে একটি মামলা দায়ের করেন।
এরপর আদালত মামলাটি গ্রহন করে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলে জন্য বীজবাগ ইউনিয়নের ফকিরহাট ভুমি সহকারী কর্মকর্তাকে প্রতিবেদন দেওয়া জন্য নির্দেশ দেন। আদালতের নিদেশ মোতাবেক ফকিরহাট ভূমি সহকারী মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন সরেজমিনে পরিদর্শন ও কাগজপত্র পর্যালোচনা করে প্রতিবেদন দািখল করেন। এতে প্রতিপক্ষ বিবাদী মনির আহম্মদ বাদীর সম্পত্তিতে কোন দাবীদার নয় বলে জানান। বিবাদী মনির আহম্মদ সাবেক ৩৮৩ বর্তমান ৭৫৬ দাগে ০.০৭ একর ভূমি বিএস ২০৭ ভুমিতে নিজ নামে রেকর্ড চুড়ান্ত হয়েছে বলে জানান। এরপর আদালতের নির্দেশে সেনবাগ থানা এএসআই গোলাম রসুল ওই স্থানে ১৪৪ ধারা জারি করেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশ অমান্য করে মনির আহম্মদ ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে বৃদ্ধ আহছান উল্লার মালিক ও দখলিয় জায়গা থেকে ককেল লক্ষ টাকার গাছ কেটে নিয়ে যায়। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছার আগেই সন্ত্রাসীরা ঘটনাস্থল থেকে সটকে পড়ে এবং মূল্যবান গাছগুলো নিয়ে য়ায়।
এব্যাপারে যোগাযোগ করলে আদালতের নির্দেশে বিরোধীয় স্থানে ১৪৪ ধারা জারি কারক সেনবাগ থানার এএসআই গোলাম রসুল ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে জানান,তিনি খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। গাছপালা কেটে নেওয়ার ঘটনা সত্য।তবে,ঘটনাস্থলে কাইকে পাওয়া যায়নি।
উল্লেখ্য দ্বিতীয় পক্ষ মনির আহম্মদ ওই ভূমিতে ১৯৬৬ সালে অনুরুপ জোরপূর্বক অনধিকার প্রবেশ কওে দখলে চেষ্টা করলে প্রথম পক্ষের পিতা মোখলেছুর রহমান আদালতে একটি সিআর মামলা নং ২৯৪৮/১৯৭০ দায়ের করলে আদালত দ্বিতীয় পক্ষ ওই ভূমিতে প্রবেশ করিবেনা মর্মে নালিশী ৩৮৩ দাগে ১আনা ভূমি দখল রহিয়াছে। দ্বিতীয় পক্ষ ওই ভূমিতে আর কোনদিন প্রবেশ করিবেনা বলে আদালতে মুছলেখা দেন। এবং দ্বিতয়ি পক্ষ ৩৮৩ দাগেল পরিবর্তে ৩৯৯ দাগে পারিবারিক আপোশ বন্টন করে।
বয়বৃদ্ধ আহছান উল্লা জানায় ওই জায়গা-জমিন নিয়ে বিরোধের কারণে তার একমাত্র ছেলে ছেরাজল হক প্রকাশ মানিক বিগত ২০০৭ সালের জুলাই মাসের ২৯ তারিখে নিখোঁজ হয়। অন্যবদি তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। এঘটনায় তিনি ও্ই সময় সেনবাগ থানায় একটি সাধাল ডাইরি করেন। যার নং১৭২। এখন ওই সম্পতি নিয়ে তাকেও হত্যা ও গুম করার হুমকি দমকি দিচ্ছেন প্রতিপক্ষ।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রতিষ্ঠাতা: মরহুম কাজী মো: রফিক উল্যাহ, সম্পাদক: ইয়াকুব নবী ইমন, প্রকাশক: কাজী নাজমুন নাহার। সম্পাদক কর্তৃক জননী অফসেট প্রেস, ছিদ্দিক প্লাজা, করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী থেকে মূদ্রিত।
বার্তা, সম্পাদকীয় ও বানিজ্যিক কার্যালয়: ছিদ্দিক প্লাজা(৩য় তলা উত্তর পাশ), করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী। মোবাইল: সম্পাদক-০১৭১২৫৯৩২৫৪, ০১৮১২৩৩১৮০৬, ইমেইল-:: jatiyanishan@gmail.com, Emonpress@gmail.com
Developed By: Trust soft bd