,

উত্তেজনার মধ্যেও তুরস্কের পাশে যুক্তরাষ্ট্র!

image-10299-1516712525

ঢাকা ব্যুরো: মধ্যপ্রাচ্যের নানা বিষয়ে তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বেশ উত্তেজনা চলছে। এরই মধ্যে গত শনিবার যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত পিকেকে, ওয়াইজিপি ও দায়েশের মতো সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক। কিন্তু এখনো পর্যন্ত তুরস্কের এ অভিযানের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে কোনো কথা বলেনি যুক্তরাষ্ট্র। বরং এ পরিস্থিতিতে তুরস্কের সঙ্গে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছে দেশটি। খবর আনাদলু এজেন্সির। সোমবার হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ হুকাবে স্যান্ডার্স এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তুরস্কের নিরাপত্তার প্রতি আমাদের সমর্থন রয়েছে। ন্যাটোভুক্ত দেশ হিসেবে আমরা তুরস্কের সঙ্গে কাজ করতে প্রতিজ্ঞ। আঙ্কারা তার নিরাপত্তার জন্য পদক্ষেপ নিতেই পারে। তিনি বলেন, আমাদের সবার মনে রাখতে হবে সন্ত্রাসীদের হাতে সাধারণ মানুষ যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। এছাড়া সিরিয়ার নিরাপত্তা ও অখণ্ডতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এদিকে সিরিয়ার আফরিনে কুর্দি, পিকেকে, ওয়াইজিপি ও ডায়েশের বিরুদ্ধে তুরস্কের সামরিক অভিযানে সমর্থন জানিয়েছে কাতার। সোমবার এ সমর্থনের ঘোষণা দিয়ে কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, তুরস্কের নিরাপত্তার জন্য সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযানে দেশটির আইনগত অধিকার রয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লুলওয়াহ রশিদ আল খাতের এর বরাত দিয়ে কাতার নিউজ এজেন্সি জানায়, গত শনিবার তুরস্ক আফরিনে যে সামরিক অভিযান শুরু করেছে, তা তাদের আইনগত বৈধ বিষয়। দেশটির নিরাপত্তার জন্য এবং সিরিয়ার অখণ্ডতা বজায় রাখার জন্য এ অভিযান খুবই জরুরি। এদিকে তুর্কি জেনারেল স্টাফ বলেছেন, তুরস্ক আন্তর্জাতিক আইন এবং জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলের বিধিবিধান মেনেই এ অভিযান পরিচালনা করছে। গত শনিবার সিরিয়ার আফ্রিন অঞ্চলে সাঁজোয়া ট্যাংকবহর ঢুকে পড়ে তুরস্কের স্থলবাহিনী। তুরস্কের বাহিনীর সঙ্গে ফ্রি সিরিয়ান আর্মির কয়েক হাজার সদস্যও রয়েছেন। অন্যদিকে কুর্দি বিদ্রোহীদের অবস্থান লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালানো হয়। আল জাজিরা জানায়, এর আগে মূলত আসাদবিরোধী ‘ফ্রি সিরিয়ান আর্মি’র কয়েক হাজার সদস্যকে মোতায়েন করা হয়েছিল তুরস্কের ট্যাংকবহরের সঙ্গে। রোববার ইস্তাম্বুলে সংবাদ সম্মেলনে ইলদিরিম বলেন, কুর্দি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রিত আফরিনে তুর্কি সেনারা প্রবেশ করেছে। তিনি আরও জানান, ওই এলাকায় তুরস্ক সীমান্তের ৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত ‘নো ফ্লাই জোন’ প্রতিষ্ঠা করা হবে।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রতিষ্ঠাতা: মরহুম কাজী মো: রফিক উল্যাহ, সম্পাদক: ইয়াকুব নবী ইমন, প্রকাশক: কাজী নাজমুন নাহার। সম্পাদক কর্তৃক জননী অফসেট প্রেস, ছিদ্দিক প্লাজা, করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী থেকে মূদ্রিত।
বার্তা, সম্পাদকীয় ও বানিজ্যিক কার্যালয়: ছিদ্দিক প্লাজা(৩য় তলা উত্তর পাশ), করিমপুর রোড, চৌমুহনী, নোয়াখালী। মোবাইল: সম্পাদক-০১৭১২৫৯৩২৫৪, ০১৮১২৩৩১৮০৬, ইমেইল-:: jatiyanishan@gmail.com, Emonpress@gmail.com
Developed By: Trust soft bd