নোবিপ্রবিতে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা হাল্ট প্রাইজ এর উদ্বোধন

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি: নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) কেক কেটে ও বেলুুন উড়িয়ে আন্তর্জাতিক হাল্ট প্রাইজ প্রতিযোগিতা ২০১৯ এর উদ্বোধন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান। সোমবার সকালে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার প্রাঙ্গনে এর উদ্বোধন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন, অনুষদসমূহের ডিন, আইআইএস ইনস্টিটিউটের এর পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) উম্মে হাবিবা, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দসহ আইআইএস ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।
উদ্বোধন শেষে উপাচার্য বক্তৃতায় বলেন, উদ্ভাবনী আইডিয়া এবং চিন্তা ভাবনার মাধ্যমে দেশ এগিয়ে যায়। ক্লাস লেকচার ও পরীক্ষার পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা যখন কো-কারিকুলাম এক্টিভিটিস হিসেবে হাল্ট প্রাইজ এর মত উদ্ভাবনী প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে তখন তাদের মেধা ও সৃজনশীলতা বৃদ্ধি পাবে। তিনি হাল্ট প্রাইজ এর উত্তোরত্তোর সফলতা কামনা করেন। উদ্বোধন শেষে মাননীয় উপাচার্যের নেতৃত্বে এক র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের গোলচত্ত্বর প্রদক্ষিণ করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়।
উল্লেখ্য, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রথমবারের মত আন্তর্জাতিক প্রোগ্রাম হাল্ট প্রাইজ এর আয়োজন করতে যাচ্ছে। হাল্ট প্রাইজ হলো- হাল্ট প্রাইজ ফাউন্ডেশন, জাতিসংঘ এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন ও তার সংগঠন “গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ” এর অধীন একটি উদ্যোক্তা তৈরির প্রতিযোগিতা, যাকে শিক্ষার্থীদের নোবেল প্রাইজ বলা হয়ে থাকে। প্রতিযোগিতাটিতে বিশে^র বিভিন্ন শীর্ষ বিশ^বিদ্যালয় যেমন- হার্ভার্ড, ক্যামব্রিজ, সাউথ ক্যালিফোর্নিয়াসহ নানা বিশ^বিদ্যালয় অংশগ্রহণ করে থাকে। যার মাধ্যমে জাতিসংঘের চিহ্নিত সমস্যার সমাধান এবং তা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ব্যবসায়িক পরিকল্পনার জন্য ১ মিলিয়ন ডলার (বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৮ কোটি টাকা) পুরষ্কার প্রদান করা হয়। হাল্ট প্রাইজের পার্টনার হিসেবে রয়েছে জাতিসংঘ এবং হাল্ট ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস স্কুল। বিশে^র সবচেয়ে সম্মানজনক এই প্রতিযোগীতায় এ বছর ১০ হাজার বিশ^বিদ্যালয় অংশগ্রহন করবে। হাল্টপ্রাইজ নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ৫ ডিসেম্বর ২০১৮ বাছাই পর্বের ফাইনাল প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে যাচ্ছে। উক্ত আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান উপস্থিত থাকার সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন। বাছাই পর্বের প্রতিযোগিতাটি আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করছে নোবিপ্রবি ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন সায়েন্সেস। এ প্রতিযোগিতায় নোবিপ্রবি’র শিক্ষার্থী, শিক্ষকসহ বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত থাকবেন। বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠান ও ফুড এন্ড বেভারেজ কোম্পানী উক্ত প্রোগ্রামে স্পনসর হিসেবে থাকতে সম্মতি জ্ঞাপন করেছে। উক্ত প্রোগ্রামে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে থাকবে- সময় টিভি, ডেইলী নিউ এজ, এবিসি রেডিও, ঢাকা রেডিও এবং দৈনিক সমকাল। এই আয়োজনের মাধ্যমে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় সর্বোপরি বাংলাদেশকে বহিঃর্বিশ্বে তুলে ধরা সম্ভব হবে। ৩০ নভেম্বর ২০১৮ : গ্রুমিং সেশন; ০২ ডিসেম্বর ২০১৮ : কনসেপ্ট জমা দেয়ার শেষ তারিখ; ০২ ডিসেম্বর ২০১৮ : রাউন্ড-১ সম্মানিত বিচারক প্যানেল জমাকৃত কনসেপ্ট থেকে ন্যূনতম ১৫টি গ্রুপের কনসেপ্ট বাছাই করবেন; ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮ : রাউন্ড-২ সম্মানিত বিচারক প্যানেল বাছাইকৃত ১৫টি গ্রুপের কনসেপ্ট প্রেজেন্টেশনের মধ্য থেকে ৫টি গ্রুপ চূড়ান্ত করবেন; ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮ : ফাইনার রাউন্ড সম্মানিত বিচারক প্যানেল বাছাইকৃত ৫টি গ্রুপের কনসেপ্ট প্রেজেন্টেশনের মধ্য থেকে ১টি গ্রুপকে বিজয়ী ঘোষণা করবেন। প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি বিভাগ থেকে ৩-৪ জন সদস্যবিশিষ্ট একাধিক দল অংশগ্রহণ করবে; অংশগ্রহণকারী দলের প্রত্যেক সদস্য পাবে বিল ক্লিনটন স্বাক্ষরিত একটি সনদ এবং বিজয়ী দল নোবিপ্রবি থেকে সরাসরি চীন, সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়া’র যেকোন একটিতে অনুষ্ঠিতব্য আঞ্চলিক পর্যায়ে অংশগ্রহন করার সুযোগ পাবে। বিস্তারিত জানতে: িি.িযঁষঃঢ়ৎরুবধঃ.পড়স/হড়ধশযধষর।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *