এবার নোয়াখালীতে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ করলো ৬০ বছরের বৃদ্ধ

প্রতিনিধি: এবার নোয়াখালীর সেনবাগের উত্তর মোহাম্মদপুর গ্রামে ৪র্থ শ্রেণির এক ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। বুধবার রাতে পুলিশ নির্যাতিতা শিশুকে উদ্ধার করে শারীরিক পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে আবুল বাসার নামে ষাটর্দ্ধ এক ব্যক্তিকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় এলাকায় বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। জেলায় ধারাবাহিক ধর্ষনের ঘটনায় উদ্বিগ্ন সচেতন মহল।
নির্যাতিতার পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত ১৫ এপ্রিল (সোমবার) বিকাল ৫টায় ওই শিশু পাশের বাড়িতে সহপাঠিদের সঙ্গে খেলছিলেন। এ সময় পাশের বাড়ির আবুল বাসার মেয়েটির মুখ চেপে ধরে তার ঘরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। ভয় দেখানোর কারণে প্রথমে এ বিষয়ে পরিবারের সদস্যদের কিছুই বলেনি নির্যাতিতা শিশু। পরে তার শারীরিক অসুস্থতা দেখে জিজ্ঞাসা করলে সে বিস্তারিত জানায়।
এদিকে খবর পেয়ে বুধবার রাতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান শেখের নেতৃত্বে সেনবাগ থানার পুলিশ ওই শিশুর বাড়িতে যান এবং তার বক্তব্য শুনেন। পরে তাকে উদ্ধার করে শারীরিক পরীক্ষার জন্য মধ্যরাতে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান।
নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল আবাসিক মেডিকেল অফিসার সৈয়দ মহি উদ্দিন আবদুল আজিম জানান, রাতে নির্যাতনের শিকার একটি শিশুকে হাসপাতালে আনা হলে আমরা তার প্রথমিক চিকিৎসা করাই। আজ তার শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন হবে।

সেনবাগ থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল আলী জানান, এ ঘটনায় নির্যাতিতা শিশুর বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর পর অভিযুক্ত ব্যক্তি পালিয়ে যায়। তাকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান তিনি ।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *