অবৈধ দখলের তালিকায় চৌমুহনী মদন মোহন মার্কেট

প্রতিনিধি: অবশেষে অবৈধ দখলের তালিকায় উঠে এসেছে বৃহত্তর নোয়াখালীর প্রধাণ বানিজ্যিক শহর চৌমুহনীর মদন মোহন হাই স্কুল মার্কেট। সরকারী খাল দখল করে শুধু এই স্কুল মার্কেটটিই নয় গড়ে তোলা হয়েছে আরো অবৈধ স্থাপনা। যা খুব শিগ্রই গুড়িয়ে দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও স্কুল কর্তৃপক্ষ বরাবরই তাদের জায়গায় মার্কেটটি নির্মানের দাবী করে আসছে। এ নিয়ে শহরে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
জানা গেছে, সামান্য বৃষ্টিতেই জেলার উত্তরাঞ্চলের বেগমগঞ্জ, সেনবাগ, চাটখিল ও সোনাইমুড়ী উপজেলায় কৃত্রিম বন্যা ও দীর্ঘস্থায়ী জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। এই চার উপজেলার মধ্যে বিশেষ করে বেগমগঞ্জ উপজেলার মানুষ দীর্ঘদিন থেকে কৃত্রিম বন্যা ও জলবদ্ধায় দূর্ভোগের শিকার হয়ে আছে। বর্ষা কালে বা যে কোন সময় সামন্য বৃষ্টি হলেই উপজেলার দূর্গাপুর, কুতুবপুর, নরোত্তমপুর, রসুলপুরসহ উত্তর পূর্বাঞ্চলের কয়েকটি ইউনিয়ন ও সোনাইমুড়ী উপজেলার দক্ষিণাঞ্চল কয়েক মাস পানির নিচে তলিয়ে যায়। চৌমুহনীসহ আশপাশের এলাকা দিয়ে দক্ষিনে বঙ্গপোসাগরের সাথে সংযুক্ত নোয়াখালী খানের চৌমুহনী অংশ অবৈধ ভাবে দখল হওয়ার কারণে পানি প্রবাহের পথ রুদ্ধ হয়ে যায়। ফলে দেখা দেয় দীর্ঘস্থায়ী বন্যা ও জলাবদ্ধতা। এই দূর্ভোগ থেকে বাঁচতে এলাকাবাসী খালগুলো অবৈধ দখল মুক্ত করে পানি প্রবাহের পথ স্বাভাবিক করতে দীর্ঘদিন থেকে সরকারের প্রতি দাবী জানিয়ে আসছে। এর পেক্ষিতে সেনাবাহিনীর মাধ্যমে নোয়াখালী খাল অবৈধ দখল মুক্ত করার উদ্যেগ নেয় সরকার। দায়ীত্ব পাওয়ার পর ইতিমধ্যে অবৈধ দখল চিহিৃত করতে মাঠে নামে সেনাবাহিনী। সম্প্রতি সেনা সদস্যরা চৌমুহনীতে এসে খালের পরিমান সম্পন্ন করেছেন। যাতে দেখা যায় চৌমুহনী মদন মোহন উচ্চ বিদ্যালয় মার্কেটসহ অনেক স্থাপনা অবৈধ ভাবে খালের উপর গড়ে তোলা হয়েছে। সেনা সদস্যদের তদন্তকারী দল খালের উপর স্থাপনায় লাল দাগ দিয়ে গেছেন বলে জানা গেছে। মূলত এর পর থেকেই চৌমুহনীতে অবৈধ দখলদারদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।
যদিও চৌমুহনী মদন মোহন উচ্চ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছেন, তারা নিজেদের জায়গায় মার্কেট নির্মাণ করেছেন। কিন্তু বাস্তব চিত্র দেখলেই বুঝা যায় মার্কেটটি কোথায় অবস্থিত। এমতাবস্থায় নোয়াখালী খালের চৌমুহনী অংশে অবৈধা দখলদারদের উচ্চেদ করে পানি প্রবাহের পথ স্বাভাবিক করার মাধ্যমে সাধারণ মানুষের দূর্ভোগ লাগবে সরকার দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন করবে এমনটাই প্রত্যাশা ভূক্তভোগীদের।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *