নোয়াখালীতে মনোনয়ন যুদ্ধে ৪ নারী প্রার্থী

স্টাফ রিপোর্টার: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নোয়াখালীর ৬টি আসনের মধ্যে চারটিতে মনোনয়ন যুদ্ধে নেমেছেন ৪ নারী প্রার্থী। এর মধ্যে তিনজন আওয়ামী লীগ ও একজন বিএনপি থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও নিয়মানুযায়ী জমাও দিয়েছেন। আলোচনায় রয়েছেন ৪ জনই।

এর আগের কোন সংসদ নির্বাচনে এই জেলা থেকে চারজন নারী এমপি প্রার্থী হতে দেখা যায়নি।

জানা গেছে, বিগত সংসদ নির্বাচনে ২০১৪ সালে নোয়াখালীর ৬টি আসনের মধ্যে ৫টিতেই নির্বাচন হয়নি। নির্বাচন হয়েছিলো নোয়াখালী-৬ (হাতিয়া) আসনে। সেখানে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিরুল ইসলামকে হারিয়ে চমক সৃষ্টি করেন সাবেক এমপি মোহাম্মদ আলীর সহধর্মীনী আয়েশা আলী। তিনি সেখানে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন। এবারও তিনি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন। দলের হাই কামান্ডের কাছে খুবই পরিচিত মুখ আয়েশা আলী। এবারও তিনি মনোনয়ন যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছেন। মনোনয়ন দৌঁড়ে অনেকটা এগিয়ে আছেন তিনি। এই আসনে আয়েশা আলী ছাড়াও আওয়ামী লীগ থেকে সাবেক এমপি আয়েশা আলীর স্বামী মোহাম্মদ আলী, আওয়ামী লীগ নেতা মাহমুদ আলী রাতুল, সাইফ উদ্দিন, আমিরুল ইসলাম, বিএনপি থেকে ফজলুল আজিম ও জাতীয় পার্টি থেকে মোজাক্কের বারী মাঠে রয়েছেন।

নোয়াখালী-৩ (বেগমগঞ্জ) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি লুৎফুন্নাহার মুন্নি। তিনি বিগত ২০০৮ সালের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের এমপি প্রার্থী ভোট করেছিলেন। কিন্তু দলীয় কোন্দলের কারণে তিনি নির্বাচিত হতে পারেননি বলে দাবি করেন। এবারও তিনি মনোনয়ন প্রত্যাশী। লুৎফুন্নাহার মুন্নি ছাড়াও এই আসনে আওয়ামী লীগ থেকে বর্তমান এমপি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শিল্পপতি মামুনুর রশিদ কিরণ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মিনহাজ আহমেদ জাবেদ, চৌমুহনী পৌর মেয়র আক্তার হোসেন ফয়সল, জাতীয় পার্টি থেকে ফজলে এলাহী সোহাগ মিঞা ও জাসদ (রব) থেকে আবদুল জলিল, জাকের পার্টি থেকে বাহার উদ্দিন ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ থেকে মাওলানা নুর উদ্দিন আমানতপুরী রয়েছেন।

নোয়াখালী-৪ (সদর-সুবর্নচর) আসনের স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর একমাত্র নারী মনোনয়ন প্রত্যাশী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট শাহীনুর বেগম সাগর। এই আসনে দুই ভিআইপির ভিড়ে মনোনয়ন সংগ্রহ করে জমা দিয়ে আলোচনায় তিনি। এই আসন থেকে শাহীনুর ছাড়াও বর্তমান এমপি একরামুল করিম চৌধুরী ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক এমপি শাহ জাহান মনোনয়ন প্রত্যাশী।

নোয়াখালী-২ (সেনবাগ-সোনাইমুড়ী আংশিক) আসনেও আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন যুদ্ধে লড়ছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেত্রী জান্নাতুল ফরদাউস। তিনি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন। এখানেও হেভিওয়েট প্রার্থীদের ভিড়ে তিনি মাঠে রয়েছেন। এই আসনে জান্নাত ছাড়াও আওয়ামী লীগের বর্তমান এমপি মোরশেদ আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আহম্মদ চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম মানিক ও অর্থনীতিবিদ জামাল উদ্দিন এফসিএ রয়েছেন।

নোয়াখালীর ৪টি আসনে চার নারী প্রার্থীদের নিয়ে অনেক কৌতুহল সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে বলছেন, নারী প্রার্থীরা আলোচনায় আসতেই মনোনয়ন কিনেছেন এবং শেষ পর্যন্ত নির্বাচনী মাঠে তাদের নাও দেখা যেতে পারে। কিন্তু এর সামাধান পেতে হলে আরও দু’এক দিন আপেক্ষা করতে হবে স্থানীয়দের। শেষ পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট দলগুলো কাকে মনোনয়ন দেয় এখন সেটাই দেখার বিষয়।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *