বেগমগঞ্জে সপ্তাহব্যাপী আলোচনায় দুটি পোস্টার

নিশান রিপোর্ট: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ঈদ কেন্দ্রিক দুটি পোস্টারকে ঘিরে সপ্তাহব্যাপী ব্যাপক আলোচনা চলছে। অনেক সাধারন মানুষকে উৎসুক হয়ে পোষ্টার দুটি দেখতে দেখা গেছে। চৌমুহনী সাধারণ ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি মো: জহিরুল হক সোহেল ও চৌমুহনী পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদের লাগানো এই পোষ্টার কৌতুহলের মূল কারণ। এ নিয়ে বিরুপ প্রতিক্রিয়া চলছে রাজনৈতিক অঙ্গনেও।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ৫ জুন অনুষ্ঠিত পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে চৌমুহনী চৌমুহনী সাধারণ ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি মো: জহিরুল হক সোহেলের পক্ষ থেকে বেগমগঞ্জ উপজেলাবাসীকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়ে পোস্টার লাগানো হয় চৌমুহনী পৌর এলাকাসহ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে। পোস্টারে তিনি জাতীর জনক, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিবারের পাশাপাতি আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছবি ব্যবহার করেন। ঈদের দিন থেকেই বিভিন্ন দেয়ালে দেয়ালে এই শুভেচ্ছা পোস্টার অনেকে কৌতুহল নিয়ে দেখতে দেখা গেছে। সোহেল বেগমগঞ্জ উপজেলাবাসীকে এভাবে শুভেচ্ছা জানানো নিয়ে রাজনৈতিক আঙ্গনেও ব্যাপক আলোচনা চলছে। অনেকে মনে করছেন সোহেল ভবিষ্যতে রাজনৈতিক আঙ্গনে সবর হওয়ার পূর্বাভাস এই শুভেচ্ছা পোস্টার।
তবে চৌমুহনী চৌমুহনী সাধারণ ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি মো: জহিরুল হক সোহেল বলেন, আমি রাজনৈতিক মতাদর্শ থেকেই এই শুভেচ্ছা জানিয়েছি বেগমগঞ্জবাসীকে। ভবিষ্যতে রাজনীতিতে সক্রিয় হবেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে জহিরুল হক সোহেল বলেন, এখনো পর্যন্ত এমন কোন মনো ভাব নেই। তবে তা সময়ে বলে দেবে।
এদিকে একই ভাবে চৌমুহনী পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদ এর পক্ষ থেকেও ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে চৌমুহনী পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে পোস্টার সাটানো হয়। তার এই পোস্টার কিছুটা বিতর্কের সৃষ্টি করেছে রাজনৈতিক অঙ্গনে। তিনি তার পোস্টারে নোয়াখালী-৩ আসনের সংসদ সদস্য মানুনুর রশিদ কিরন ও চৌমুহনী পৌর মেয়র আক্তার হোসেন ফয়সলের মাঝে বেগমগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান এডভোকেট আবদুর রহিমের ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। এ নিয়ে শহরে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানতে নোয়াখালী-৩ আসনের সংসদ সদস্য মানুনুর রশিদ কিরন, বেগমগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এডভোকেট আবদুর রহিম ও চৌমুহনী পৌর মেয়র আক্তার হোসেন ফয়সলের মোবাইলে কল করলেও পাওয়া যায়নি।
তবে চৌমুহনী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি দীর্ঘ দিন ৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। পোস্টারে উল্লেখিত তিন জনেই আমার মুরুব্বি এর মধ্যে মামুনুর রশিদ কিরণ ও আবদুর রহিম সাহেব পৌরসভার সাবেক মেয়র। মূলত সেই হিসেবেই আমি উনাদেরকে আমার পোস্টারে সংযুক্ত করেছি।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *