মেঘনার শীর্ষ দস্যু ফরিদ কমান্ডার গ্রেফতার অস্ত্র ও গুলি উদ্ধিার

প্রতিনিধি: নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার মেঘনা উপকূলীদের ত্রাস, শীর্ষ সন্ত্রাসী ও দস্যু বাহিনীর প্রধান ফরিদ কামান্ডারকে গ্রেফতার করেছে হাতিয়া কোষ্টগার্ড। মঙ্গলবার ভোরে হাতিয়ার সোলেমান বাজার এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে ৪টি একনলা বন্দুক, ১টি রিভলবার, ৩ রাউন্ড গুলি, ১টি চাপাতি, দুটি মোবাইলসহ অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার সকালে নোয়াখালী জেলা শহরের সার্কিট হাউসে কোস্ট গার্ডের হাতিয়া রিজেন্ট লে. এম হামিদুল ইসলাম এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হাতিয়া কোষ্টগার্ডের একটি দল জেলার সীমান্ডে দূর্গম তেগাছিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ফরিদ কমান্ডারকে গ্রেফতার করে। তার রিরুদ্ধে নোয়াখালী-লক্ষীপুর, ভোলা, চট্টগ্রামের বিভিন্ন থানায় হত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ, লুটতরাজসহ অন্তত ২২টি সুনিদিষ্ট মামলা রয়েছে। ফরিদ দীর্ঘদিন থেকে নোয়াখালী-লক্ষীপুর সীমান্তে একটি বাহিনী গঠন করে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছিলো। এই বাহিনীর কাছে জিম্মি ছিলো হরনি ইউনিয়নের বয়ারচর, মাইন উদ্দিন বাজার, টিনের মসজিদ, লক্ষীপুর সীমান্ত ও আশপাশের এলাকার হাজার হাজার হাজার মানুষ।

এদিকে ফরিদ কমান্ডার ও তার বাহিনীর সদস্যদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড স্থানীয় দৈনিক জাতীয় নিশান, বাংলা টিভিসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে বিভিন্ন সময় সংবাদ শিরোনাম হয়। গত বছর র‌্যাব অভিযান চালিয়ে ফরিদ কমান্ডারকে গ্রেফতার করার সময় তার বাহিনীর সদস্যরা র‌্যাবের উপর হামলা চালিয়। এ সময় অন্তত ৩ র‌্যাব সদস্য আহত হয়। এর পর থেকেই পালাতক ছিলো ফরিদ। তার গ্রেফতারে স্ব:স্তির নি:শ^াস ফেলছে দুই জেলার সীমান্তের মানুষ।

মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় নোয়াখালীর পুলিশ সুপার ইলিয়াছ শরীফ জানান, গ্রেফতারকৃত ফরিদকে কোষ্টগার্ড হাতিয়া থানায় হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া চলছে।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *