স্টাফ রিপোর্টার: নোয়াখালী বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌর এলাকার পূর্ব বাজার ফেনী রোডে অবস্থিত আল হায়াত জেনারেল হাসপাতাল এন্ড রিচার্স ট্রেনিং ইনিস্টিটিটে এই প্রথম বারের মত চালু করা হয়েছে বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারী বিভাগ। এতোদিন নোয়াখালীর কোন হাসপাতালেই এই বিভাগ চাুল ছিলোনা। নোয়াখালীতে কেউ অগ্নিদগ্ধ হলে ঢাকায় বা চট্টগ্রামে নেয়ার আগেই অনেক রোগী মারা যেত। আল হায়াতে বিভাগটি চালু করায় পাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে সাধুবাদ জানিয়েছে সচেতন মহল।
সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, আগুনে পোড়ার চিকিৎসার লক্ষ্যে নতুন দিগন্ত উন্মোচনকারী প্রতিষ্ঠানটিতে অত্যান্ত দক্ষতার সাথে রোগীদের সর্বোচ্চ সেবা প্রদান করা হয়। ইতিমধ্যে নোয়াখালীতে আর কোনো বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারী বিভাগ না থাকায় প্রতিষ্ঠানটি জেলার অসংখ্য মানুষের মনের আস্থা জাগিয়েছে। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এই হাসপাতালে বর্তমানে দুটি বিভাগ চালু রয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে বহি:বিভাগ ও আন্ত:বিভাগ। বহি:বিভাগের রয়েছে ডিজিটাল মেশিনে এক্সরে, ফোরডি কালার ইকো-কার্ডিওগ্রাফী, ইসিজি, প্যাথলজী, হরমোন টেস্ট, ইরেকট্রোলাইট। আন্ত:বিভাগে রয়েছে প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ, সার্জারী, মেডিসিন, শিশুরোগ, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অত্যাধুনিক অপারেশন থিয়েটার, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কেবিন, সিসিইউ, আইসিইউ (প্রস্তাবিত) এবং হাসপাতাটিতে ২৪ঘন্টা ডাক্তার, ফার্মেসী ও নিজস্ব এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে অভিজ্ঞ মেডিকেল অফিসার ও গাইনীর তত্ত্বাবধানে ডিপ্লোমা সিস্টার দ্বারা নরমাল ডেলিভারীর ব্যবস্থা, গাইনী বিভাগ, মেডিসিন বিভাগ, অর্থোপেডিক বিভাগ, শিশু রোগ বিভাগ/শিশু সার্জারী, কার্ডিওলজীর ব্যবস্থা রয়েছে।
একাধিক রোগীর সাথে আলাপ কালে তারা জানায়, আল হায়াত জেনারেল হাসপাতাল এন্ড রিচার্স ট্রেনিং ইনিস্টিটিটে চিকিৎসার জন্য এতে কর্তৃপক্ষের সেবামূলক মনোভাব দেখে তারা সন্তুষ্ট। প্রতিষ্ঠানটি আরো এগিয়ে যাবে বলে তারা আশা প্রকাশ করেন।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *