বেগমগঞ্জে যৌতুকের বলি গৃহবধু

প্রতিনিধি: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে যৌতুকের বলি হয়েছে ২ সন্তানের জননী গৃহবধু রুমি আক্তার (২৫)। বুধবার সন্ধায় পুলিশ উপজেলার নরোত্তমপুর ইউনিয়নের নরোত্তমপুর গ্রারেম সেকান্তর মিয়ার বাড়ি থেকে থেকে লাশ উদ্ধার করেছে। নিহত গৃহবধু ওই বাড়ির মহিন উদ্দিনের স্ত্রী। এ ঘটনার পর বাড়ি থেকে পালিয়েছে স্বামী মহিন।
জানা যায়, সেকান্তর মিয়ার বাড়ির মুক্তিযোদ্ধা কালা মিয়ার ছেলে মহিন ৮ বছর পূর্বে পাশ্ববর্তি সোনাইমুড়ী উপজেলার বজরা ইউনিয়নের নবাবগঞ্জ গ্রামের আলী আহমদের মেয়ে রুমি আক্তারের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী তাদের সংসারে দুটি শিশু সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে মহিন রুমিকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে মহিন বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক আনতে রুমিকে নানা ভাবে নির্যাতন করতো। এ নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ তাদের সংসারে পারিবারিক অশান্তি চলছিল। একাধিক বার শালিস দরবার হলেও কোন সমাধান হয়নি। এর জের ধরে বুধবার বিকালে মহিন তার স্ত্রী রুমিকে মারধর শেষে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে লাশ বিছানার উপর রেখে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে নিহতের স্বজনরা ও নরোত্তমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ বাচ্চু ঘটনাস্থলে যান।
নিহত গৃহবধুর পিতা আলী আহমেদ যৌতুকের জন্য তার স্বামী তার মেয়েকে হত্যা করেছে বলে দাবী করেন। তিনি তার মেয়ে হত্যাকারীর ফাঁসি চান।
নরোত্তমপুর ইউপি চেয়ারম্যার হারুনুর রশিদ বাচ্চু জানান, নিহত গৃহবধুর বাবার দাবী তার মেয়েকে যৌতুকের জন্য হত্যা করা হয়েছে। আর শ্বশুড় বাড়ির লোকজনের দাবী রুমি আত্মহত্যা করেছে। বাকিটা পুলিশি তদন্তে বেরিয়ে আসবে।
বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি হারুনুর রশিদ চৌধুরী জানান, আমরা খবরটি পেয়েছি। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হবে। এ ঘটনায় নিহতের বাবার পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে পুলিশ তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *