করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত অহসায় নোয়াখালী পৌরবাসীর পাশে মেয়র সোহেল

ইয়াকুব নবী ইমন: প্রাণঘাতি করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত নোয়াখালী পৌরবাসীর পাশে দাঁড়িয়েছেন মেয়র শহিদ উল্যাহ খান সোহেল। প্রথম থেকেই পৌরবাসীর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় নিয়েছেন নানা প্রদক্ষেপ। সরকারী ভাবে জেলায় লকডাউন ঘোষনার পর ঘরবন্ধী মানুষের বাড়ি বাড়ি খাদ্র সামগ্রী পৌঁছে দেয়ার পাশাপাশি পৌর ভবনেও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিতরণ করেছেন নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য সামগ্রী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশিত এই ত্রাণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানান মেয়র শহিদ উল্যাহ খান সোহেল। এমন ব্যতিক্রমি ও মানবিক ত্রাণ কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানিয়েছে সচেতন মহল।
জানা গেছে, নোয়াখালী পৌর এলাকায় মরণব্যাধী করোনার পাদুর্ভাব দেখা দেওয়ার পর থেকেই মেয়র শহিদ উল্যাহ খান সোহেল নানা কর্মসূচীর মাধ্যমে পৌরবাসীর পাশে দাঁড়ান। তিনি প্রথমে স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য পৌরবাসীর মাঝে হ্যান্ডস্যানেটাইজ, মাক্সসহ করোনা প্রতিরোধী বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ করেন। সরকারী ভাবে লকডাউন শুরু হলে পৌরসভার গাড়ির মাধ্যমে ঘর বন্ধী মানুষের বাড়ি বাড়ি খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন। পাশাপাশি সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে পৌর ভবনেও নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী ও ইফতার সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রাখেন। সমাজের পিছিয়ে পড়া তৃণমূলের দরিদ্র জনগোষ্টি মুচি, বেদে, হিজড়া, দোপা, নাপিত, রিক্সা চালক, ঠেলা গাড়ি চালক, প্রতিবন্ধী, ফরিক, মেসকিন, ভ্রাম্যমান দিনমজুর থেকে শুরু করে নিন্মবিত্ত, মধ্যবিত্ত, উচ্চ মধ্যবিত্ত কেউ বাদ পড়েনি সহযোগীতর হাত থেকে। শুধু তাই নয়, জেলার মুক্তিযোদ্ধা, শি-িসংস্কৃতিক কর্মী, ক্রীড়া সংগঠক, পৌর এলাকার মসজিদের ইমান-মুয়াজ্জিনসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষের জন্য মেয়র সোহেল ঘোষনা করেন প্রনোদনা। এতো কিছুর পরও মেয়র সোহেল ভূলে যাননি শিশুদের কথা। পৌর এলাকার শতাধিক অভিভাবকের মাঝে শিশুখাদ্যও বিতরণ করেন। পত্রিকার হকারদের মাঝেও বিতরণ করেন খাদ্য সামগ্রী। প্রতিদিন সন্ধায় ভ্রাম্যমান রোজাদারদের মাঝে ইফতার ও সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন। মেয়র সহিদ উল্যাহ খান সোহেলের সহযোগীতা পেয়ে খুশি করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পৌরবাসী।
পৌরসভার ভুলুয়া কলোনির একাধিক বাসিন্ধা জানান, করোনা আসার পর থেকেই আমরা কর্মহীন হয়ে পড়ি। পরিবার পরিজন নিয়ে যখন দিশেহারা তখন আমাদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন মেয়র শহিদ উল্যাহ সোহেল। আমাদেরকে নিত্য প্রয়োজনীয় সব সামগ্রী তিনি দিয়ে যাচ্ছেন। এমন মেয়র পেয়ে আমরা ধন্য।
জেলা শহর মাইজদীর একাধিক সচেনত ব্যক্তি জানান, দলমত নির্বিশেষে মেয়র সোহেলের এমন ব্যতিক্রমি ও মানবিক কার্যক্রম সত্যি প্রশংসার যোগ্য। আমরা উনার এই কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানাই। আমরা চাই নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র শহিদ উল্যাহ খান সোহেলের মতো জেলার অন্যান্য পৌর মেয়ররাও করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াবে।

এক প্রতিক্রিয়ায় নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র শহিদ উল্যাহ খান সোহেল জানান, পৌরসভার ও ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে এখনো পর্যন্ত কোটি টাকার ত্রাণ সামগ্রী পৌরবাসীর মাঝে বিতরণ করা হয়েছে এবং যতদিন করোনার প্রভাব থাকবে ততদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশিত এই ত্রাণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। করোনা রোগ থেকে বাঁচতে তিনি পৌরবাসীকে সতর্ক থাকার ও সচেতন হবার আহবান জানান।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *