সোনাইমুড়ীতে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন।

প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে সন্ত্রাসী সোহাগ ও তার সহযোগিদের গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। শনিবার বিকাল ৩ টার দিকে সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবে এসে উপজেলার কৌশলারবাগ গ্রামের ইউনুস মিয়ার পুত্র ব্যবসায়ী লিটন ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা লিখিত বক্তব্যে জানান, ব্যবসায়ী লিটন ও তার পরিবারের ওপর একই এলাকার নুরুল আমিন খোকার ছেলে সন্ত্রাসী সোহাগ ইতি পূর্বে কয়েকবার জায়গা জমিনের ভাগ-ভাটোয়ারা হামলা চালিয়েছে। বিগত ৯ জুন বিকাল ৩টার দিকে পূর্বের ন্যায় সন্ত্রাসী সোহাগ ও তার সহযোগি মিলন, ইকাবাল হোসেন ও বাপ্পিসহ ৫/৬ জন দেশিয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে লিটন তার বৃদ্ধ মা আমেনা বেগম, চাচাত ভাই হানিফ ও তার স্ত্রী হাসিনা বেগমকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে। পরে স্বানিয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী  লিটনের চাচাত ভাইয়ের স্ত্রী হাসিনা বেগম বাদী হয়ে সোনাইমুড়ী থানায় সন্ত্রাসী সোহাগসহ ৬ জনকে বিবাদী করে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলা দায়ের করার পরও পুলিশ অদৃশ্য ইশারায় সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করেছে না। উল্টো সন্ত্রাসীরা মামলা প্রত্যাহার করতে অব্যহত হুমকি দিচ্ছেল। যার কারনে ঐ পরিবার চরম নিরাপত্তাহিনতায় ভুগছেন। ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী লিটন কান্না জড়িত কণ্ঠে জানান, সন্ত্রাসী সোহাগ সোনাইমুড়ী উপজেলা পরিষদে দৈনিক মুজুরি ভিত্তিতে মালির চাকুরি করে। তার চাকুরি মালি হলেও সে ইউ এনও টিনাপালের গাড়ি চালান। এ সুবাদে সে এলাকায় ইউ এনও টিনাপালের প্রত্যক্ষ ও পরক্ষ মদদে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। ভুক্তভোগি পরিবার সন্ত্রাসী সোহাগ ও তার পরিবার থেকে বাঁচতে ও তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনে ত প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *