নোয়াখালীর তিন কিংবদন্তি


ইয়াকুব নবী ইমন: শিক্ষাই জাতীর মেরুদন্ড, যে জাতী যত শিক্ষিত সে জাতী তত উন্নত। শিক্ষিত জাতী সমাজের দর্পন, সমাজ বিপ্লবের হাতিয়ার। এমন বাস্তবতাকে সামনে রেখে নোয়াখালীতে হাতে গোনা যে কয়জন শিক্ষা বিস্তারে অবদান রেখে যাচ্ছেন তাদের মধ্যে অন্যতম নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান মো: সাহাব উদ্দিন, তমা গ্রুপের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক ও সানজি গ্রুপের চেয়ারম্যান লায়ন জাহাঙ্গীর আলম মানিক। তিন জনেই নোয়াখালীর কৃতি সন্তান। তাঁরা গ্রাম পর্যায়ে শিক্ষা বিস্তারে বিপ্লব ঘটানোর চেষ্টা করছে। শিক্ষার প্রসারে রাখছেন গুরুত্বপূর্ন অবদান। দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সারাদেশে।
অভিজ্ঞ মহলের মতে, সারাদেশে যখন রাজনীতির লেবাসে লুটপাটের মহোৎসব চলছে, তখনই এই তিন মানব দরদি নিজেদের কষ্টার্জিত অর্থের বিশাল একটা অংশ ব্যয় করছেন নিজ নিজ এলাকার শিক্ষা বিস্তারে। স্থাপন করেছেন বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয়। এই বিদ্যায়ল ও মহাবিদ্যায় সৃষ্টির মাধ্যমে গ্রাম পর্যায়ের হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রী উচ্চ শিক্ষার সুবিধা পাচ্ছে।
অভিজ্ঞ মহল মনে করছেন, কালের আবর্তে নোয়াখালীর আজকের অনেক জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ হারিয়ে যাবেন রাজনীতির গতানুগতিক ধারায়। কিন্তু এই তিন শিক্ষা প্রেমি কখনোই হারিয়ে যাবেন না। বরং এই পৃথিবী যতদিন থাকবেন ততদিন তাদের এই সৃষ্টি চির অবিশ^রনীয় হয়ে থাকবে। আর তারা থাকবেন মানুষের হৃদয়ের মনি কোঠায়।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বর্তমান কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শাহাবুদ্দিন উপজেলার চরহাজারী (হাজারী বাসা) এলাকায় ২০১০ নালে প্রতিষ্ঠা করেন উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান জেতুন নাহার কাদের মহিলা কলেজ । এই কজেল প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে তিনি কোম্পানীগঞ্জ, ফেনীর সোনাগাজী ও দাগনভূঞা উপজেলার প্রত্যান্ত অঞ্চলে নারী শিক্ষার বিস্তারে অনন্য ভূমিকা পালন করছেন। এই প্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করে এখানকার নারীরা সহজেই শিক্ষিত হতে পারছে। উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে শাহাবুদ্দিন আজীবন বেঁচে থাকবেন এ অঞ্চলের মানুষের হৃদয়ে।
তমা গ্রুপের কর্ণধার আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক ২০১৬ সালে নিজ এলাকা সোনাইমুড়ী উপজেলার বারগাঁও ইউনিয়নের হোসেনপুরে আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক স্কুল এন্ড কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। দৃষ্টিনন্দন এই প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠার পর থেকেই অত্যান্ত সুনামের সাথে পরিচালিত হয়ে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। এই প্রতিষ্ঠানের জন্য তিনি বেঁচে থাকবেন অনন্তকাল।
অপরদিকে নোয়াখালী-ফেনী আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে সেনবাগের মাটিতে সানজি গ্রুপের চেয়ারম্যান লায়ন জাহাঙ্গীর আলম মানিক ২০১৮ সালে তাঁর নিজের নামে প্রতিষ্ঠা করেন লায়ন জাহাঙ্গীর আলম মহিলা কলেজ। নারী শিক্ষা বিস্তারে মানিকের এই চেষ্টা তাঁকে বাঁচিয়ে রাখবে শতাব্দীর পর শতাব্দী। নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের কৃতি সন্তান সাংবাদিক রফিকুল আনোয়ার বলেন, আমি অনেককে দেখেছি যারা ইচ্ছে করলে নোয়াখালীর জন্য অনেক কিছু করতে পারেন। কিন্তু তাদের আগ্রহের অভাব রয়েছে। এর চেয়ে ব্যতিক্রম দেখছি এই তিন ৩ মানবদরদি নেতাকে। যারা নিজের জেলায়, নিজের এলাকায় শিক্ষা বিস্তারে বিপ্লব শুরু করেছেন। এই তিন মহা মানব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দীর্ঘদিন বেঁচে থাকবেন আমাদের মাঝে। তাদের জানাই লাল সালাম।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *