দক্ষিণ আফ্রিকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত নোয়াখালীর মিলনের বাড়িতে শোকের মাতম

জাতীয় নিশান রিপোর্ট: জীবিকার তাগিদে দক্ষিণ অফ্রিকায় গিয়ে আরো এক বাংলাদেশী সন্ত্রাসীদের হাতে প্রাণ হারিয়েছেন। নিহত এই রেমিট্যান্স যোদ্ধা নোয়াখালীর মো: মিলন(২৫)। শুক্রবার রাতে চাঁদা দাবীতে কৃষ্ণাঙ্গ সন্ত্রাসীরা তাকে এলোপাথাড়ী কুপিয়ে হত্যা করে। শুক্রবার মিলনের মৃত্যুর সংবাদ দেশে আসলে গ্রামের বাড়িতে নেমে আসে শোকের ছায়া। বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। সরকারের কাছে মিলনের খুনিদের বিচার ও প্রবাসীদের নিরাপত্তা দাবী করেছেন নিহত মিলনের পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি এলাকাবাসী। জানা যায়, নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী পৌর এলাকার ৫ নং ওয়ার্ডের নোয়া বাড়ির ছিদ্দিকুর রহমানের পুত্র মিলন। জীবিকার সন্ধানে সাড়ে ৫ বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকায় ফাঁড়ি জমান এই যুবক। সেখানে নর্থ সাউথ শহরে তিনি প্রতিবেশির ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চাকরী করতেন। ৬ মাস আগে তিনি নিজেই একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দেন। সম্প্রতি স্থানীয় কিছু কৃষ্ণাঙ্গ সন্ত্রাসী তার কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে। মিলন চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় সন্ত্রাসীরা তাকে এলোপাতাড়ী কুপিয়ে নগদ টাকা ও মালামাল নিয়ে যায়। খবর পেয়ে অন্যান্য বাঙ্গালীরা গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন। মিলনের মৃত্যুর সংবাদ বাড়ীতে আসার সাথে সাথে পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। মিলনের বাবা অসুস্থ। মিলনেই ছিলো পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। মিলনের খুনিদের বিচার দাবী করেছেন পরিবারের সদস্যরা। শুধু মিলন নয়, তার পরিবারের মতো শত শত প্রবাসীর পরিবারের সদস্যরা আতঙ্কের মধ্য দিন কাটছে। তারা বিষয়টি নিয়ে সরকারের হস্তপেক্ষ কামনা করছেন। এ ব্যাপারে সোনাইমুড়ী পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জসিম উদ্দিন বলেন, প্রবাসীরা দেশের সম্পদ । কিন্তু তাদের নিরাপত্তায় আজ পর্যন্ত সরকার বা কোন সংস্থা ব্যবস্থা গ্রহন করছেনা। তাই প্রবাসীদের নিরাপত্তা দাবী করেছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ এলাকাবাসী।
মিলনের মতো আর কোন প্রবাসী যেন সন্ত্রাসীদের হাতে এমন নির্মম ভাবে খুনের শিকার না হয় সে ব্যাপারে সরকার বা সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ যথাযথ প্রদক্ষেপ গ্রহন করবেন এমটাই প্রত্যাশা সকলের।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *