বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেলো স্কুল ছাত্রী

কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে দশম শ্রেণির ছাত্রী কামরুন নাহার মিম’র বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেয়েছে। একই সঙ্গে তাকে বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করায় তার মায়ের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। অন্যদিকে স্থানীয় এলাকাবাসী আশঙ্কা প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে বর পক্ষ কনেকে নিয়ে যেতে পারে। জানা যায়, চরকাঁকড়া একাডেমীর দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই ছাত্রী প্রেম করে কোর্ট এফিডেভিটের মাধ্যমে আগে বিয়ে করে। শুক্রবার পারিবারিক ভাবে বসুরহাট পৌরসভা ৭নং ওয়ার্ডের আবুল কাশেম’র ছেলে নুর আলম সাথে তাদের বিয়ের আয়োজন চলে। খবর পেয়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিকালে সরেজমিনে কনের বাড়িতে গিয়ে বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দেন। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.ফয়সল আহমদ জানান, বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ এর ১০ ধারায় কনের মাকে মুচলেকা নিয়ে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। কনে প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ার আগে বিয়ে দেওয়া যাবেনা। আদেশ অমান্য করলে অভিভাবকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *