লক্ষ্মীপুরে ট্রাকচাপায় নিহতদের বেগমগঞ্জের গ্রামের বাড়িতে শোকের মাতম

স্টাফ রিপোর্টার: লক্ষ্মীপুরে ট্রাকের চাপায় নিহত ৭ জনের মধ্যে একই পরিবারের ৬ জনের বাড়ি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে। তাঁরা উপজেলার আলাইয়ারপুর ইউনিয়ানের জগদীশপুর গ্রামের মিনার বাড়ীর বাসিন্ধা। দূর্ঘটনায় একই পরিবারের ৬ জন নিহতের ঘটনায় চলছে শোকের মাতম। বুধবার সকালে নোয়াখালী-লক্ষ্মীপুর সড়কের রতনপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, নিহত শাহ আলমের ছেলে ছাত্রলীগ কর্মী নাদিম মাহমুদ অন্তরকে মঙ্গলবার রাতে লক্ষ্মীপুরের সাদারঘর এলাকায় দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে আহত করেন। আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত নাদিমকে দেখতে তার পারিবারের লোকজন বুধবার সকালে সিএনজি অটোরিক্সা যোগে বেগমগঞ্জের গ্রামের বাড়ি থেকে চন্দ্রগঞ্জ হয়ে হাসপাতালে যাচ্ছিলো। সিএনজি অটোরিক্সাটি রতনপুর ঘটনাস্থলে পৌঁছামাত্র বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষের পর রাস্তার পাশে উল্টে যায় । এতে সিএনজি অটোরিক্সাটি ধুমড়ে মুচড়ে যায়। এ সময় সিএনজিতে অটোরিকশার যাত্রী শাহ আলম (৫০), তাঁর স্ত্রী নাছিমা আক্তার (৪৫), নাছিমার বোন রোকেয়া বেগম (৩৫), নাছিমার মা শামছুন নাহার (৬০), রোকেয়ার ছেলে রুবেল (১১), শাহ আলম, নাছিমা দম্পতির ছেলে অমিত (৮) ও সিএনজি আটোরিকশার চালক লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের রামকৃষ্ণ পুর গ্রামের গাঁছি বাড়ীর বাসিন্দা নুরু ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। লক্ষ্মীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালাক মো. আবদুল্লাহ ও চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক শাহজাহান খান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে মরদেহগুলো উদ্ধার করা ময়না তদন্তের জন্য লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তি আইগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
বুধবার দুপুরে বেগমগঞ্জ উপজেলার আলাইয়ারপুর ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান জানান, মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় একটি পরিবারের ৬ জন নিহতের ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বিষয়টি খুবই দু:খজনক। সন্ত্রাসী হামলায় আহত ছেলেকে দেখতে গিয়ে এভাবে সবার মৃত্যু হওয়া মেনে নিতে পারছেনা এলাকাবাসী।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *