শিরোনাম :
অনিক বাহিনীর কাছে জিম্মি শরীফপুর ইউনিয়নবাসী খতমে নুবুয়ত ইসলামি মহা সম্মেলন অনুষ্ঠিত নির্মাণ শ্রমিক ফেডারেশন বেগমগঞ্জ উপজেলা শাখার উদ্যোগে মহান মে দিবস পালন নাটেশ্বরে এমপির নাম ভাঙ্গিয়ে অপকর্ম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থী রাহির নামে অপপ্রচার, নোয়াখালীতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন মদিনা বাজার যুব সমাজের উদ্যোগে যুবকদের সম্মানে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত প্রবাসীর সহযোগীতায় নোয়াখাালীতে মানবসেবা ফাউন্ডেশনের উদ্দ্যোগে ইফতার ও ঈদ উপহার  হাতিয়ার মানুষের জীবনযাত্রার উন্নয়নে কাজ করবেন সুইডেনের রাজকন্যা   কোম্পানীগঞ্জে বৈদ্যুতিক শট সার্কিটের আগুনে পুড়ল ৮ দোকান ২১ বছর বয়সে দেখায় শিশুর মত, আকৃতি দমাতে পারেনি ৩ ফুট ১০ ইঞ্চির সোনিয়াকে

বেগমগঞ্জে ঝুঁকিপূর্ন ভবনে পাঠদান

  • আপডেট সময় : বুধবার, এপ্রিল ৫, ২০২৩
  • 458 পাঠক

ইয়াকুব নবী ইমন:
নোয়াখালী বেগমগঞ্জ উপজেলার উত্তর পশ্চিম কুতুবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ঝুঁকিপূর্ন হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন ধরে ভবনটি সংস্কার বা নতুন ভবন নির্মাণ না করায় শিক্ষার্থীদের ঝুঁকির মধ্যেই পাঠদান করাচ্ছেন শিক্ষকরা। বিদ্যালয় ভবনটি যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়ে ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা।
জানা গেছে, এলাকায় শিক্ষা বিস্তারের লক্ষে ১৯৭৬ সালে উত্তর পশ্চিম কুতুবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করা হয়। ২০১৩ সালে বিদ্যালয়টি সরকারী করণ করা হয়। বর্তমানে যে ভবনটিতে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করানো হচ্ছে সেটি ১৯৯৪ সালে নির্মিত। দীর্ঘদিন ভবনটি সংস্কার না করায় ঝুঁকিপূর্ন হয়ে পড়েছে। ইটের কনা ও সুরকি খসে পড়ে সরু হয়ে গেছে পিলারগুলো, শেওলা জমেছে ভবন জুড়ে। ক্লাস চলাকালে প্রায় সময় উপরের চাদ থেকে ইট সুরকি খসে পড়ে। এতে অনেকে আহতও হয়েছেন। ভয়ে অভিভাবকরা সন্তানদের এই বিদ্যালয়ে ভর্তি করাতে চাননা। যে কোন সময় বিদ্যালয় ভবনটি ভেঙ্গে পড়ে মারাত্মক দূর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েেেছ।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: সোলাইমান ও পরিচালনা কমিটির সভাপতি ইমাম হোসেন জানান, ভবনটি যে আবস্থায় আছে যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়তে পারে। আমরা আতঙ্কের মধ্যে আছি। কখন দূর্ঘটনা ঘটে যায় বলা যায়না। আমরা বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। কিন্তু কোন কাজ হচ্ছেনা। বিদ্যালয়টি এই মুহুর্তে পরিত্যাক্ত ঘোষনা করে নতুন একটি ভবন করা জরুরী হয়ে পড়েছে। আমরা উর্ধতন কর্তৃপক্ষে দৃষ্টি আকর্ষন করছি।
কুতুবপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার হাফেজ জাফর উল্যাহ স্বপন জানান, শিক্ষক-শিক্ষার্থীর পাশাপাশি অনেক অভিভাবক তাদের সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠিয়ে চিন্তায় থাকেন। আমরা চাই দ্রæত এখানে একটি নতুন ভবন হোক। আমাদের পক্ষ থেকে সব রকমের সহযোগীতা করা হবে।
বেগমগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইয়াসির আরাফাত ও শিক্ষা অফিসার আবদুল হান্নান পটোয়ারী জানান, বিদ্যালয়টি সম্পর্কে খোঁজ খবর নিয়ে দ্রæত প্রদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।
নোয়াখালী-৩ আসনের সংসদ সদস্য মামুনুর রশিদ কিরণ বলেন, আমরা ইতিমধ্যে অনেকগুলো প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তালিকা করেছি। সেই তালিকায় যদি বিদ্যালয়টি থাকে তাহলে দ্রæতই নতুন ভবন হবে। আর তালিকায় নাম না থাকলে সংশ্লিষ্ঠদের সাথে কথা বলে বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মানে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সামাজিক যোগাযোগ মধ্যমে শেয়ার করুন...

এ বিভাগের আরো খবর....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *